গুগল প্লাসে পছন্দমতো নাম

একেবারে শুরু থেকেই গুগল প্লাস তার ব্যবহারকারীদের বিশেষ কিছু সুবিধা দেওয়ার চেষ্টা করছে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী গুগল প্লাসে ব্যবহারকারীর সংখ্যাও বাড়ছে বেশ দ্রুত। আর সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট হিসেবে ফেসবুকের সঙ্গে স্বভাবতই তুলনা চলে আসে। গুগল প্লাস চালু হওয়ার প্রথম থেকেই এর ব্যবহারকারীদের অন্যতম চাহিদা ছিল প্রোফাইল এবং পেজগুলোর জন্য সংক্ষিপ্ত ইউআরএল ব্যবহারের সুবিধা যোগ করা। সম্প্রতি গুগল বেশ কিছু ব্যবহারকারী এবং বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের জন্য সংক্ষিপ্ত আকারের ইউআরএল ব্যবহারের সুবিধা চালু করেছে। যেমন টয়োটা কোম্পানির গুগল প্লাস প্রোফাইলের লিংক হবে www.google.com/+toyota
নতুন এই বৈশিষ্ট সম্পর্কে গুগলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে বর্তমানে নির্দিষ্ট কিছু ব্যবহারকারীর জন্য এই বৈশিষ্ট্যটি চালু করা হলেও এটি গুগল প্লাসের সব ব্যবহারকারীর জন্যই উন্মুক্ত করা হবে। বর্তমানে গুগল প্লাস ব্যবহারকারীর প্রোফাইল ইউআরএল হিসেবে ব্যবহারকারীর বেশ বড় আকারে আইডি দেখানো হয়। এমনকি এখানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পেজ বা বিষয়ভিত্তিক পেজগুলোর জন্যও একই পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। প্রোফাইল আইডির বড় আকারের সংখ্যাটি স্মরণ রাখাও বেশ কষ্টকর। যার ফলে খুব অল্পসংখ্যক প্রতিষ্ঠানই নিয়মিতভাবে বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে গুগল প্লাস প্রোফাইলটি ব্যবহার করত।
এখানে উল্লেখ্য, ফেসবুক ২০০৯ সালে প্রথম এই ধরনের বৈশিষ্ট্যটি চালু করেছিল। এবং সেই সময় থেকেই ব্যবহারকারীরা বিশেষত বিভিন্ন পেজের জন্য এই ধরনের ছোট আকারের ইউআরএল তৈরির বিষয়টি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। —টেক ক্রাঞ্চ অবলম্বনে নাসির খান

Published on: http://www.prothom-alo.com/detail/date/2012-08-23/news/283032

গুগল ট্রান্সলেটরে ছবি থেকে অনুবাদ

সম্প্রতি গুগল ট্রান্সলেটর অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের একটি নতুন সংস্করণ প্রকাশ করা হয়েছে। নতুন এই সংস্করণের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো, ছবিতে থাকা কোনো লেখা অ্যাপের মাধ্যমে অনুবাদ করা যাবে। নতুন সংস্করণের অ্যাপটি থেকে ছবি তোলা একটি অপশন রাখা হয়েছে। ক্যামেরা দিয়ে তোলা ছবি অথবা আগে থেকে সংরক্ষণ করা কোনো ছবি এই ট্রান্সলেশন অ্যাপের মাধ্যমে অনুবাদ করা যাবে। গুগল ডক থেকে বেশ অনেক দিন আগে থেকেই ছবি থেকে লেখায় স্থানান্তর করার সুযোগটি রয়েছে। ট্রান্সলেশনের নতুন অ্যাপে এই বৈশিষ্ট্যটি আরও বর্ধিত আকারে ব্যবহারের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। গুগল ট্রান্সলেটরে যে সব ভাষা থেকে অনুবাদ করা যায় তার সবগুলো এখনই এখানে পাওয়া যাচ্ছে না। বর্তমানে অন্তর্ভুক্ত করা ভাষাগুলোর মধ্যে রয়েছে ডাচ, জার্মান, তুর্কি, রাশিয়ান, পর্তুগিজ, পোলিশ, ইতালিয়ান, স্প্যানিশ, ফ্রেঞ্চ ইত্যাদি।
অ্যান্ড্রয়েড ২.৩ জিঞ্জারব্রেড বা এর পরবর্তী কোনো সংস্করণ ইনস্টল করা রয়েছে এমন সব ফোন বা ট্যাব থেকেই এই অ্যাপটি ব্যবহার করা যাবে। আর অনুবাদ করার কাজটি যেহেতু গুগলের মূল ইঞ্জিনের মাধ্যমে ব্যবহার করতে হবে, তাই এটি ব্যবহার করার সময় ইন্টারনেট সংযোগ সক্রিয় হবে।
এর পাশাপাশি নতুন সংস্করণে স্পিচ ইনপুটের পদ্ধতিটি উন্নত করা হয়েছে, ফলে আঞ্চলিক পদ্ধতিতে উচ্চারণ করা হলেও মূল শব্দগুলো সঠিকভাবে চিহ্নিত করা সম্ভব হচ্ছে। হাতে লিখে ইনপুটের ক্ষেত্রেও জাপানি ভাষার মান উন্নয়ন করা হয়েছে।
—নাসির খান

Published at: http://www.prothom-alo.com/detail/date/2012-08-18/news/282643

প্রথম আলো পড়ুন ইউনিকোডে

বাংলাদেশের সবচাইতে জনপ্রিয় পত্রিগুলোর মধ্যে প্রথম আলো একটি ।  কিন্তু এটির অনলাইন সংস্করনটি এখনও ইউনিকোডে রুপান্তররত করা হয় নি।  এটি মাইক্রোসফট ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারে সঠিক ভাবে দেখা যায় এবং বিশেয কয়েকটি ফন্ট ইনস্টল করলে মজিলা-ফায়ারফক্স বা অন্যান্য ওয়েব সাইট ব্রাউজারে দেখা যায়। তবে যারা লিনাক্সের মত মুক্ত অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করেন তাদের জন্য অনলাইন সংস্করনটি দেখার কোন পদ্ধতি ছিল না।

খুব অল্প কিছু দিন আগে এম. এম. রিফাত-উন-নবী নামের এক তরুন কম্পিউটার প্রোগ্রামার মজিলা-ফায়ারফক্স ওয়েব সাইট ব্রাউজারটির জন্য “পরশমনি” নামে একটি অ্যাড-অন তৈরী করেন যেটি ব্যবহার করে প্রথমআলো পত্রিকাটি ইউনিকোডে পড়তে পারা যায়।

ডাউনলোড লিংক: https://addons.mozilla.org/en-US/firefox/addon/9975

এটির এখনও সম্পূর্ন ভার্সন বের হয় নি তাই এটি ডাউনলোড করতে প্রথমে মজিলার অ্যাকাউন্টে লগইন করতে হবে।  অ্যাকাউন্ট না থাকলে বিনামূল্য তৈরী করা যায়। তবে আপনারা বিকল্প ঠিকানা থেকেও ডাউনলোড করতে পারবেন।

http://www.vistaarc.com/downloads/poroshmoni/

ডাউনলোড করে ইনস্টলের পর ব্রাউজারটি রিস্টর্ট করতে হবে।  ইনস্টলের পর আপনারা বিশেষ কিছু অসুবিধার সম্মুখীন হতে পারেন । যেমন আপনার কম্পিউটারে যদি “বংশি আলপোনা” নামের ফন্টটি ইনস্টল করা থাকে তবে আপনি যুক্তাক্ষরগুলো ভাঙ্গা ভাঙ্গা অর্থাৎ অক্ষরগুলো আলাদা আলাদা ভাবে দেখতে পাবেন । ফন্টটি আনইনস্টল করলেই লিখা ঠিক ভাবে দেখা যাবে।

আবার হয়তো ফন্টটি অনেক ছোট মনে হতে পারে বা হয়তো ফন্টটি পরিবর্তন করতে চাইতে পারেন। ফন্ট ছোট হলে Ctrl ও + সুইচদুটি একসাথে চাপলে ফন্ট বড় হতে থাকবে । আর ফন্ট পরিবর্তের জন্য উইন্ডোজে “Font Fixer” নামে একটি সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন।

এই সমস্যা গুলো উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে হতে পারে তবে লিনাক্সের মত মুক্ত অপারেটিং সিস্টেমে এধরনের কোন সমস্যা হবার কথা না। তবে ফন্ট বড় করতে চাইলে একই পদ্ধতিতেই বড় করতে পারবেন।

আপনাদের আবারও জানিয়ে রাখছি এটি এখনও বেটা পর্যায়ে রয়েছে , আপনারা যদি কোন ত্রুটি বা বাগ খুজে পান তবে নিচের ঠিকানায় জানাতে পারেন।

to[dot]rifat+poroshmoni[at]gmail[dot]com