ফেসবুক পেজ ভেরিফিকেশন আসলে কী

prothom alo facebook pageফেসবুক ভেরিফায়েড পেজের কথা প্রায়ই শোনা যায়৷ এই ফেসবুক ভেরিফিকেশন নিশ্চিত করে দেয়, যাঁর নামে ফেসবুক ফ্যানপেজ রয়েছে, পেজটি আসলে তাঁরই৷ ফেসবুক ভেরিফিকেশন আসলে কী? ভেরিফায়েড করানোর উপায়ই বা কী?

নিয়মিত যোগাযোগের জন্য ফেসবুক প্রোফাইল ব্যবহার করেন-এমন ব্যবহারকারীর সংখ্যাও প্রচুর৷ আবার বিখ্যাত লোকেরা যোগাযোগের জন্য ব্যক্তিগত প্রোফাইলের চেয়ে ফেসবুক পেজ ব্যবহারে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন৷ প্রতিষ্ঠান, ব্র্যান্ড, অনুষ্ঠান ও কার্যক্রম সম্পর্কে জানানোর জন্যও ফেসবুক পেজ তৈরি করা হয়ে থাকে৷

ফেসবুক সবার জন্য উন্মুক্ত, যে কেউ ইচ্ছা করলেই তাঁর নিজের প্রোফাইল ও পেজ তৈরি করতে পারেন৷ একই সঙ্গে ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র উল্লেখ করার প্রয়োজনীয়তা নেই বলে একজন ব্যক্তি অন্য কারও নামেও অ্যাকাউন্ট ​তৈরি করতে পারেন৷ এমনকি অন্য প্রতিষ্ঠানের নামে ফেসবুক পেজ তৈরি করে নিয়মিত হালনাগাদও করা যায়৷ বিখ্যাত প্রতিষ্ঠান অথবা ব্যক্তির নামে এমন ভুয়া অ্যাকাউন্ট বা পেজ থেকে প্রচারণা চালানো হলে ওই ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের জন্য বিস্তারিত পড়ুন

ফেসবুক থেকে বিনা মূল্যে কল!

সম্প্রতি ফেসবুকের মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে বিনা মূল্যে একে অপরের সঙ্গে কথা বলার একটি বিশেষ সুবিধা চালু হয়েছে। বর্তমানে কেবল যুক্তরাষ্ট্রের আইফোন ব্যবহারকারীরা এই বিশেষ সুবিধা ব্যবহার করতে পারবেন। ফেসবুক মোবাইল অ্যাপের মেসেঞ্জার অংশ থেকে অনলাইনে থাকা অপর ব্যবহারকারীর সঙ্গে কথা বলা যাবে। তবে এটি ব্যবহার করতে হলে তারহীন ওয়াই-ফাই বা মোবাইল ফোন নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ইন্টারনেটে যুক্ত থাকতে হবে।
ফেসবুকের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, প্রাথমিকভাবে তাঁরা আইফোনের জন্য অ্যাপ প্রকাশ চালু করছেন এবং ফেসবুকের অ্যান্ড্রয়েড এবং ব্ল্যাকবেরি সংস্করণের অ্যাপগুলোতেও এই বৈশিষ্ট্য সংযোজনের কাজ চলছে। মোবাইল ফোনে যাঁদের বেশিকথা বলতে হয়, তাঁদের সুবিধার কথা বিবোচনা করেই ফেসবুক এটি চালু করেছে।
ফেসবুক অ্যাপের মাধ্যমে আরেকজনের সঙ্গে কথা বলার জন্য প্রত্যেককেই আইফোনের মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে অনলাইনে থাকতে হবে। ডেস্কটপ বা অন্য মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে ফেসবুকে অনলাইনে রয়েছে এমন ব্যবহারকারীর সঙ্গে এই পদ্ধতিতে কথা বলা যাবে না। আবার ফেসবুক থেকে অপর কোনো ফোনেও কল করার ব্যবস্থা রাখা হয়নি এখানে। আগে ফেসবুকে স্কাইপের মাধ্যমে ভিডিও কল করার সুবিধা চালু ছিল। তবে এই ক্ষেত্রে মোবাইল থেকে মোবাইলে যোগাযোগের জন্য আলাদা প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। আইফোনের পাশাপাশি অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারকারীরাও যেন এ সুবিধা ব্যবহার করতে পারেন, সে জন্য এই নতুন প্রযুক্তিটির মান উন্নয়নের কাজ করা হচ্ছে।
—বিবিসি অবলম্বনে নাসির খানস

Published on Prothom-alo – http://www.prothom-alo.com/detail/date/2013-01-19/news/322502

মজিলা ফায়ারফক্স কাস্টমাইজ করা

মজিলা-ফায়ারফক্স ব্যাবহারকরীরা অ্যাডঅন ইনস্টল করতে অভ্যস্ত। কাজের সুবিধার জন্য আমরা বিভিন্ন সময় অনেক অনেক অ্যাডঅন ইনস্টল করি।
কিন্তু ফায়ারফক্সেই এর কনফিগারেশন পরিবর্তন করার অপশন রয়েছে।সেটি হল about:config

ফায়ারফক্সের ওয়েবসাইটের অ্যাড্রেস লেখার জায়গায় লেখতে হবে about:config
Enter কী চাপার পর একটি ওয়ার্নিং ম্যাসেজ দেখানো হয়। তখন “I’ll be carefull, I promise!” লেখা বাটনটি ক্লিক করতে হবে। এরপর বিশাল একটা লিস্ট আসবে। যে যে বিষয় গুলা পরিবর্তন করতে চাই তা Filter লেখার লেখাটির পাশের খালি জায়গায় লেখতে হবে।

১) লোকেশন বারের সাজেশনের সংখ্যা পরিবর্তন করা
লোকেশন বারে(যেখানে ওয়ের সাইটের ঠিকানালেখা হয়) কোন ওয়েব সাইটের ঠিকানা লেখার সময় নিচে একটি সাজেশন লিস্ট ওপেন হয়। সেখানে ১২ টি সাজেশন থাকে। প্রয়োজন অনুযায়ী এটা পরিবর্তন করা যায়।
লেখতে হবে: browser.urlbar.maxRichResults
ডিফল্ট: 12
পরিবর্তন: যতগুলা দেখতে চাই সেই সংখ্যা লেখলেই হবে। সাজেশন বন্ধ করতে চাইলে -1 লেখতে হবে।

২) সেশন রি-স্টোর বন্ধ  করা
ফায়ারফক্স প্রতি ১০ সেকেন্ড পর পর সেশন সেভ করে, ফলে হটাৎ বন্ধ করলে বা ক্রাশ করলে তা রি-স্টোর করা যায়। অনেকের এই অপশনটি ভালো নাও লাগতে পারে। চাইলে এটি বন্ধ করা যাবে।
লেখতে হবে: browser.sessionstore.enabled
ডিফল্ট: True
পরিবর্তন: False লেখলে বন্ধ হয়ে যাবে।

৩) সেশন রি-স্টোর অ্যাডজাস্ট করা

সেশন রি-স্টোর যেমন বন্ধ করা যাবে, তেমনই এটি কতক্ষন পর পর সেভ করবে তা ঠিক করে দেয়া যায়।
লেখতে হবে: browser.sessionstore.interval
ডিফল্ট: 10000(মাইক্রো সেকেন্ডে দেয়া, 10000 মানে 10 সেকেন্ড)
পরিবর্তন: 1000 মানে 1 সেকেন্ড, 60000 দিলে 1 মিনিট পর পর সেব হবে।

৪) অ্যাডভান্স কালার প্রোফাইল সাপোর্ট
এটি এমন একটি সুবিধা যার মাধ্যমে ফায়ারফক্সে ছবি আরও ভালো কোয়ালিটিতে দেখা যাবে। এই সুবিধাটা বন্ধ করা থাকে, করন এর ফলে ব্রাউজার ধীরে ওপেন হতে পারে। তবে দরকার মনে করলে এটি অন করে লেয়া যাবে।
লেখতে হবে: gfx.color_management.enabled
ডিফল্ট: False
পরিবর্তন: True (কালার প্রোফাইল সাপোর্ট অন হবে)

৫) ভাইরাস স্ক্যান বন্ধ করা
এটা মূলত উইন্ডোজ ব্যাবহার কারীদের জন্য। ফায়ারফক্স ৩ কোন ফাইল ডাউনলোড করার সময় ফাইলটা ডিফল্ট এন্টি ভাইরাস দিয়ে চেক করে। ফলে অনেক বড় ফাইল নামানোর সময় অনেক বেশি সময় বিস্তারিত পড়ুন

Yoono: সামাজিক যোগাযোগের সকল ওয়েবসাইট ব্যবহার করুন একই স্থান থেকে

সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন ওয়েবসাইট সমূহ বেশ দ্রুত জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। নিয়মিত ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা তো আছেনই সেই সাথে এই ধরনের নেটওয়ার্কে যুক্ত হতে নতুন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যাও বাড়ছে। আর প্রায় প্রত্যেকেই ফেইসবুক(www.facebook.com ), টুইটার(www.twitter.com ), লিংকড ইন(www.linked.com ), ফ্লিকার(www.flickr.com ), এমএসএন, ইয়াহু, গুগলের মত একাধিক নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে বন্ধুদের সাথে যুক্ত থাকতে চেষ্টা করেন।

যে কোন আপডেট দেখা নতুন স্ট্যাটাস দেয়া নতুন বার্তা বা নোটিফিকেশন দেখার বেশ সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। সেদিক থেকে এদের ডেক্সটপ ক্লায়েন্টসমূহ এই সময় অনেকটাই বাচিয়ে দেয়। তবে একাধিক নেটওয়ার্কের ডেক্সটপ ক্লায়েন্ট বিস্তারিত পড়ুন

ম্যাসেঞ্জার থেকে ফেসবুক চ্যাট [pidgin.im]

ইন্টারনেটে তাত্ক্ষণিক বার্তা আদানপ্রদানের যে সফটওয়্যারগুলো (মেসেঞ্জার) আছে, সেসবেরই প্রায় সবগুলোর কাজই করা যাবে পিজিন (www.pidgin.im) থেকে। ইয়াহু, এমএসএন, গুগলটকের মতো জনপ্রিয় প্রায় সব মেসেঞ্জারের বিকল্প হিসেবেই এটি ব্যবহার করা যায়। পিজিনের বিশেষ সুবিধা হলো, এটিতে একই সঙ্গে একাধিক অ্যাকাউন্টে ঢুকে বার্তা আদানপ্রদান করা যায়।যেমন—ইয়াহু, গুগল বা এমএসএনের একাধিক অ্যাকাউন্ট একই সঙ্গে ব্যবহার করা যাবে এখানে। সেই সঙ্গে ব্যবহার করা যাবে ফেসবুকের চ্যাট অপশনটিও। পিজিনে এমনিতে ফেসবুক চ্যাটের সুবিধা সরাসরি না থাকলেও ছোট একটি প্রোগ্রামের (প্লাগইন) মাধ্যমে এটি ব্যবহার করা যাবে। উইন্ডোজ বা লিনাক্স দুই ধরনের অপারেটিং সিস্টেমে ইনস্টল করা যাবে এই প্রোগ্রামটি।
এটি পাওয়া যাবে http://code.google.com/p/pidgin-facebookchat ঠিকানার ওয়েবসাইটে।ব্যবহারকারীর কম্পিউটারের উপযোগী সংস্করণটি নামিয়ে সেটি ইনস্টল করে নিতে হবে।
ইনস্টল করার পর পিজিন চালু করতে হবে। Accounts>>Manage Accounts নির্বাচন করলে নতুন অ্যাকাউন্ট যুক্ত করার অপশন পাওয়া যাবে। সেখানে অফ বাটনটি চাপলে অ্যাকাউন্ট যোগ করার একটি উইন্ডো দেখা যাবে। এখানে অ্যাকাউন্টের ধরন, ব্যবহারকারীর নাম ও পাসওয়ার্ড লিখতে হয়। ফেসবুক চ্যাট চালু করার জন্য এই উইন্ডোতে Protocol-এর পাশে Facebook এবং Username, Password-এর স্থানে ইমেইল ঠিকানা ও পাসওয়ার্ড লিখতে হবে। মেসেঞ্জার থেকেই ফেসবুকের স্ট্যাটাস পরিবর্তন করা যাবে। Accounts থেকে Facebook অ্যাকাউন্টটিতে ক্লিক করা হলে Set Facebook status নামের অপশনটি পাওয়া যাবে।

অফলাইনে থেকেই দেখুন ফেসবুকের অনলাইন বন্ধুদের

ইয়াহু, এমএসএন বা জিমেইলের মত মেসেঞ্জারে অবস্থা Available থেকে Away, Invisible, বা অফলাইন এ পরিবর্তন করা যায়। চ্যাটা করার সময় এগুলি ব্যবহার করে বিশেষ কিছু সুবিধাও পাওয়া যায়। যেমন Invisible মোডে থাকার সময় আপনি অনলাইনে থেকে অন্যদের অবস্থা দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু অন্যরা বুজতে পারবে না যে আপনি অনলাইনে রয়েছেন। কারণ এই মোডে রয়েছে এমন কোন ব্যবহারকারীকে অন্যান্য ব্যবহারকরীরা অফলাইন হিসাবে দেখতে পায়। ফেসবুক এ চ্যাট করার সময় এমন কোন অপশন পাওয়া যায় না। এখানে কেবলমাত্র অনলাইন এবং অফলাইন নামে দুটি মোড থাকে। অনলাইনে থাকলে সবাই আপনাকে দেখতে পারবে এবং অফলাইনে থাকলে চ্যাট অপশনটি ব্যবহার করা যায় না। ফেসবুকের Online Now (http://www.facebook.com/apps/application.php?id=29197096351) অ্যাপলিকেশনটি Invisible মোড এর মত কাজ করে। এটি ব্যবহার করে অফলাইনে থাকা কোন ব্যবহারকারী সহজেই জানতে পারবেন অন্য কোন ব্যবহারকারী বিস্তারিত পড়ুন

ফেসবুকের নতুন ছবি আপলোডের টুল

 

ফেসবুক ছবি আপলোডের জন্য নতুন একটি টুল তৈরী করেছে। পরীক্ষামূলক পর্যায়ে থাকলেও ফেসবুব্যবহারকারীদের জন্য এটি উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে। ছবি আপলোডের আগের টুলগুলির তুলনায় এটি অনেক বেশী কার্যকর। এর মাধ্যমে ছবি খুব সহজে ও দ্রুততার সাথে আপলোড করা যায়। বর্তমানে ফেসবুকে প্রায় ৮০০০ কোটি ছবি রয়েছে এবং প্রতি মাসে প্রায় ২০০ কোটি অতিরিক্ত ছবি যুক্ত করা হচ্ছে। ফেসবুক থেকে পরিচালিত একটি জরিপে দেখা যায় যে ফেসবুকের টুলগুলির মধ্যে ছবি আপলোডারটি টুলটি সবথেকে বেশী কম জনপ্রিয়। এখনে বেশ কিছু বাগ রয়েছে যার ফলে ব্যবহারকরীদের প্রায় সময়ই সমস্যার সম্মুখীন বিস্তারিত পড়ুন