উইকিপিডিয়ায় নেদারল্যান্ডের জাতীয় আর্কাইভ তথ্য

সম্প্রতি নেদারল্যান্ডের জাতীয় আর্কাইভ তাদের কাছে সংরক্ষিত এক হাজারেরও বেশি ছবি উইকিপিডিয়ায় সর্বসাধারণের জন্য প্রকাশ করেছে। এই ছবিগুলো প্রধানত দেশটির বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এবং সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন রাজনৈতিক ঘটনার। বিশেষভাবে এ ধরনের ছবি প্রকাশ করার কারণ হলো, সরকারি অনেক অনুষ্ঠানেই সর্বসাধারণের জন্য ছবি তোলা বা প্রকাশের সুযোগ দেওয়া হয় না। এই প্রকাশনার ফলে উইকিপিডিয়ায় নেদারল্যান্ডের রাজনীতি এবং এ-সম্পর্কিত বিভিন্ন নিবন্ধে এই ছবিগুলো ব্যবহার করা যাবে।

সাধারণত ঐতিহাসিক ঘটনা নিয়ে লেখা নিবন্ধসংক্রান্ত ছবি সহজেই সংগ্রহ করা যায়। কারণ অনেক ক্ষেত্রেই ছবিগুলো পাবলিক ডোমেইনে চলে আসে, যার ফলে ছবিগুলো উইকিপিডিয়ায় ব্যবহার করতে আইনগতভাবে কোনো সমস্যা থাকে না। তবে সাম্প্রতিক সময়ে তোলা ছবিগুলোর ক্ষেত্রে সেই সুবিধা পাওয়া যায় না। সাধারণত কোনো দেশের সরকারি প্রতিষ্ঠান সরাসরি উইকিপিডিয়ার সঙ্গে কাজ করে না। মধ্যবর্তী কোনো প্রতিষ্ঠান সরকার ও উইকিপিডিয়ার সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের কাজ করে থাকে। সাধারণত বিশেষ প্রকল্পের মাধ্যমে এ ধরনের কাজ করা হয়ে থাকে। এ ক্ষেত্রে ‘ব্লেডেনে ভোর দ্য টোয়িকোমোস্ট’ বা ভবিষ্যতের জন্য ছবি নামের একটি উইকি প্রকল্পের মাধ্যমে উইকিমিডিয়া নেদারল্যান্ড এই প্রকাশনার কাজটি সম্পন্ন করেছে।
এখানে প্রকাশিত অধিকাংশ ছবি বিভিন্ন সময়ের ইতিহাসের সাক্ষী। ছবিগুলো দেখেই সেই সময়কার ঘটনা সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়। উইকিমিডিয়া নেদারল্যান্ডের পক্ষ থেকে লোডেউইজেক জিওলাফ বলেন, ‘কাজটি সফলভাবে সম্পন্ন করতে পেরে আমরা খুবই আনন্দিত। এ ধরনের একটি প্রকাশনা অতীতের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের ইতিহাস সংরক্ষণে বিশেষ ভূমিকা পালন করবে। একই সঙ্গে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এর মাধ্যমে উপকৃত হবে। আমরা আশা করব, নেদারল্যান্ডের মতো বিভিন্ন দেশের সরকারের সঙ্গে উইকিপিডিয়ার সম্পৃক্ততা বাড়বে।’

Advertisements

উবুন্টুতে নেটওয়ার্ক ঠিকানা(MAC address) পরিবর্তন

কম্পিউটার ব্যবহার করার সময় বিভিন্ন কারণেই ম্যাক অ্যাড্রেস পরিবর্তন করার প্রয়োজন হয়। উবুন্টুতে ম্যাক অ্যাড্রেস পরিবর্তন করার জন্য বেশ কয়েকটি পদ্ধতি রয়েছে। এমনকি উবুন্টু সফটওয়্যার রিপোজিটরিতে এমন কয়েকটি সফটওয়্যারও রয়েছে, যেগুলো ব্যবহার করে এই পরিবর্তনের কাজটি করা যায়। উবুন্টুতে নেটওয়ার্ক কনফিগারেশনগুলো একটি ফাইলে লেখা থাকে। সেই ফাইলটি পরিবর্তন করে স্থায়ীভাবে ম্যাক পরিবর্তন করা যায়। কোনো সফটওয়্যার ব্যবহার ছাড়াই টারমিনাল থেকে মাত্র দুটি কমান্ড ব্যবহার করে এই কাজটি করা যায়।

এ কাজটি করতে প্রথমে টারমিনালে Applications\ Accessories\Terminal খুলে নিচের কমান্ডটি লিখুন।

sudo gedit/etc/network/ interfaces

এরপর কিবোর্ড থেকে Enter চাপুন। পাসওয়ার্ড বিস্তারিত পড়ুন

grub -2 রিস্টোর করা

উবুন্টু এবং উইন্ডোজ ডুয়েলবুট থাক অবস্থায় নতুন করে উইন্ডোজ ইনস্টল করা হলে কম্পিউটার চালু হওয়ার সময় অপারেটিং সিস্টেম নির্বাচনের অপশনটি থাকে না । সাধারণবাবে উইন্ডোজ অপারেটইং সিস্টেম ছাড়া অন্য কোন অপারেটিং সিস্টেমকে চিনতে পারে না । ফলে নতুন করে ইনস্টল করা হলে সেটি ইনস্টল করা থাকলেও অন্য অপারেটিং সিস্টেমগুলিকে খুজে পায় না। ফলে অপারেটিং সিস্টেম নির্বাচন করার অপশন ছাড়াই কম্পিউটার চালু হয়। ইনস্টল করা উবুন্টু মেনুতে ফিরিয়ে আনতে নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করুন। এই পদ্ধতিতে গ্রাব ২ রিস্টোর করা যাবে।

১. লাইভ সিডি বা ইউএসবি ব্যবহার করে উবুন্টু চালু করুন।
২. যে ড্রাইভে উবুন্টু ইনস্টল করা আছে শুধুমাত্র সেই ড্রাইভটি ওপেন করুন। উপরের টুলবার থেকে Places >> Computer  থেকে এই কাজটি করা যাবে।
৩. এবার অ্যাপলিকেশন মেনু থেকে টারমিনাল (Applications >> Accessories >> Terminal) চালু করুন এবং টারমিনালে নিচের কমান্ডটি ব্যবহার করুন।

ls /media

৪. কমান্ডটি ব্যবহার করা হলে উবুন্টু পার্টিশনটির নাম দেখাবে। এই নামগুলি সাধারণত বিশাল আকারের একটি নম্বর দিয়ে প্রকাশ করা হয়। এবার নিচের কমান্ডটি ব্যবহার করা হলে বুট লোডার নতুন করে ইনস্টল হবে।

sudo grub-install –root-directory=/media/0aaf0473-9b39-451b-a3d2-efd1014f0ccc /dev/sda

উপরের কমান্ডে media/ এর পরে যে নম্বরটি লেখা হয়েছে সেটি উবুন্টু পার্টিশনের নম্বর। অন্য ব্যবহারকারীর ক্ষেত্রে এটি আলাদা হবে। এই নামটি লিখতে media/ এর পর কীবোর্ড থেকে Tab বাটন চাপুন তাহলেই সম্পূর্ণ নামটি লেখা হয়ে যাবে। লেখার সময় ভুল এড়াতে এখান থেকে সরাসরি কপি করে পেস্ট করতে পারেন।


সঠিকভাবে রিস্টোর সম্পন্ন হলে নিচের মত একটি বার্তা দেখানো হবে। এরপর কম্পিউটার রিস্টার্ট করে স্বাভাবিক ভাবে আবার চালু করতে হবে।
“Installation finished. No error reported. …………….”

উবুন্টুতে বাংলা লেখার বিভিন্ন পদ্ধতি

উবুন্টুতে বাংলা লেখার কীবোর্ড লেআউট ইনস্টলের সময়ই দেয়া থাকে। সাধারণ পদ্ধতিতে লেআট যুক্ত করা ছাড়াও সম্প্রতি IBus নামে কীবোর্ড লেআউট যুক্ত করার নতুন একটি পদ্ধতি যুক্ত করা হয়েছে। বাংলা কীবোর্ড লেআউট যুক্ত করার পদ্ধতি এবং লেআউট পরিবর্তন করার জন্য সর্টকাট কী চালু করার পদ্ধতি নিচে দেখানো হল।

সাধারণ পদ্ধতি

লেআউট পরিবর্তনের সর্টকাট তৈরী

IBus ইনপুট পদ্ধতি ব্যবহার

সাধারণ পদ্ধতি

উবুন্টুতে বাংলায় লিখতে চাইলে প্রথমে বাংলা কী-বোর্ড অ্যাড করে নিতে হবে।প্যানেল থেকে System >> Preferences >> Keyboard এ ক্লিক করুন। যে Keyboard Preferences উইন্ডো আসবে তার Layouts ট্যাব-এ ক্লিক করলে নিচের উইন্ডোটি দেখা যাবে। বিস্তারিত পড়ুন

উবুন্টুতে সফটওয়্যার ইনস্টল (ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করা ফাইল)

কম্পিউটারের সাথে ইন্টারনেট সংযোগ থাকলে বেশ কয়েকটি পদ্ধতিতে খুব সহজে উবুন্টুতে সফটওয়্যার করা যায়। সেক্ষেত্রে উবুন্টু রিপোজিটরী থেকে সরাসরি ডাউনলোড হয়ে সফটওয়্যার গুলি ইনস্টল হয়। তবে এই রিপোজিটরি থেকে ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে সফটওয়্যার প্যাকেজসমূহ ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যায়। এছাড়াএমন বেশ কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে যেখান থেকে আলাদা ভাবে সফটওয়্যার প্যাকেজ ডাউনোলোড করে সফটওয়্যার ইনস্টল করা যাবে। তবে এভাবে ইনস্টল করা সফটওয়্যারগুলা সব সময় ভালো নাও হতে পারে এবং অনেক ক্ষেত্রে সফটওয়্যার গুলাতে সয়ংক্রিয় আপডেট অপশন থাকে না। ফলে নতুন সংস্করণ প্রকাশের পর নতুন করে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড বিস্তারিত পড়ুন

উবুন্টুতে সফটওয়্যার ডাউনলোড এবং ইনস্টল করা

উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারকরীরা .exe বা .msi এক্সটেনশন সহ ফাইল ইনস্টল করতে অভ্যস্ত। উইন্ডোজের উপযোগী কোন সফটওয়্যার ইনস্টল করতে হলে সাধারণত সফটওয়্যারটির ডেভলপার সাইট থেকে ডাউনলোড করতে হয় । তবে উবুন্টু লিনাক্সে সফটওয়্যার ইনস্টল করার পদ্ধতিটি বেশ সহজ। উবুন্টুতে ইনস্টল করার উপযোগী প্রায় সকল সফটওয়্যারের সমন্বয়ে একটি সফটওয়্যার রিপোজিটরী তৈরী করা হয়েছে। সেখান থেকে পছন্দমত সপটওয়্যঅর ইনস্টল করা যাবে । যদিও সফটওয়্যার ইনস্টল করার এটিই একমাত্র পদ্ধতি নয়। টারমিনাল, ওয়েব ব্রাউজার ও প্যাকেজ ম্যানেজারের মাধ্যমেও উবুন্টুতে সফটওয়্যার ইনস্টল করা যায়। তবে উইন্ডোজ সফটওয়্যারের সাথে লিনাক্স সফটওয়্যারের একটি বড় ধরনের পার্থক্য রয়েছে। সাধারণত লিনাক্সের বড় আকারের সফটওয়্যারগুলি  একাধিক প্যাকেজে বিভক্ত করা থাকে। মূল সফটওয়্যার প্যাকেজটি ইনস্টল করার পূর্বে অন্যান্য প্যাকেজগুলি ইনস্টল করা থাকতে হয়। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় একাধিক সফটওয়্যার একটি প্যাকেজ ব্যবহার করে ।  তখন ঔ প্যাকেজটি আর পুনরায় ইনস্টল করতে হয় না।


উবুন্টুতে সফটওয়্যার ইনস্টল করতে হলে কোন প্যাকেজ আগে ইনস্টল করতে হবে আর কোনটি পরে এটি আপনাকে জানতে হবে না । যেই পদ্ধতিতেই ইনস্টল করুননা কেন বিস্তারিত পড়ুন

উবুন্টুতে জিপিআরএস/এজ/জুম মডেম অথবা মোবাইলের মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার

জিপিআরএস বা এজ মডেমের মাধ্যমে উবুন্টুতে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যায়। এমন কি সিটিসেল জুম মডেম ব্যবহার করারও সুযোগ রয়েছে উবুন্টুতে। এধরনের মডেম বা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করার বিভিন্ন পদ্ধতি দেখানো হল:


জিপিআরএস বা এজ মডেম দিয়ে ইন্টারনেট ব্যাবহার (গ্রাফিকাল মোড)

গ্রামীনফোন, একটেল, বাংলালিংক, ওয়ারিদ এর কানেকশন ব্যবহার করে জিপিআরএস/ এজ মডেম বা মোবাইল এর মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চাইলে এই পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। সিটিসেল বা টেলিটক কানেকশন ব্যবহার করে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চাইলে নিচের অংশে দেখতে হবে।

System >> Preferences >> Network Connections ওপেন করতে হবে। তৃতীয় ট্যাব Mobile Broadband এ বিস্তারিত পড়ুন